Customer Helpline । 01885 055 055



বাবুকে নিরাপদভাবে গোসল করাচ্ছেন তো? জেনে নিন সহজ কিছু টিপ্‌স!

Posted by Mohammed . on

বাচ্চারা সাধারণত গোসলের সময়টুকু অনেক উপভোগ করে। এই সময়ে মা-বাবা এবং বাচ্চার মধ্যে খেলাধুলার মাধ্যমে সুন্দর বন্ধন গড়ে ওঠে। কিন্তু গোসল করানোর ক্ষেত্রে অবশ্যই সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

এই টিপসগুলো বাচ্চার গোসলের সময়কে করে তুলবে নিরাপদ ও আনন্দময়-

  • সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম হচ্ছে- বাচ্চাকে কোনভাবেই পানির কাছে একা রাখা যাবেনা, তা যত কম সময়ের জন্যই হোক না কেন বাচ্চাদের শরীর অল্প পরিমাণ পানিতেও ডুবে যেতে পারে।
  • গোসল শুরু করার পূর্বে প্রয়োজনীয় সব জিনিসপত্র গুছিয়ে হাতের কাছে রাখতে হবে। যেমন- সাবান, তোয়ালে, ডায়াপার, জামাকাপড়, ইত্যাদি।
  • গোসল করানোর আগে তার শরীর অলিভ অথবা মাসাজ ওয়েল দিয়ে ভালো করে মাসাজ করে নিতে পারেন।
  • সবসময় তাকে এক হাতে ধরে রাখতে হবে। যদি গোসলের সময় কোন জরুরি কাজ করার প্রয়োজন হয়, তবে তাকে পানি থেকে উঠিয়ে নিরাপদ স্থানে রেখে অথবা ঘরের অন্য কাউকে দ্বায়িত্বে দিয়ে সে কাজে যেতে হবে। 
  • ঠান্ডা বাতাসে খুব সহজে বাচ্চাদের ঠান্ডা লেগে যায়। এজন্য বাচ্চাকে বাথরুমে নেওয়ার পূর্বে বাথরুম গরম করে নেওয়া ভাল।
  • বাচ্চাকে যদি বাথটাবে গোসল করানো হয় তাহলে পানি ভরার সময় বাচ্চাকে না বসানো ভাল। আরও পানি ভরার পর তার তাপমাত্রায় পরিবর্তন আসতে পারে যা বাচ্চার জন্য অতি গরম কিংবা ঠান্ডা হতে পারে। এছাড়াও পানির পরিমাণ বেশি হয়ে যেতে পারে। এছাড়াও পানির শব্দ বাচ্চা পছন্দ নাও করতে পারে।
  • টাব পিচ্ছল হয় যার জন্য অনেক ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এজন্য টাবের ফ্লোরে রাবার ম্যাট বসাতে হবে যেন বাচ্চা ঠিকমত বসতে পারে। আরো নিরাপদ হয় যদি বাচ্চাকে বাথারে বসিয়ে গোসল করানো যায়।
  • গোসলের পানির তাপমাত্রা কুসুম গরম হওয়া উচিত। তাপমাত্রা পরীক্ষা করার জন্য কনুই কিংবা হাতের তালুর উল্টো পিঠ ব্যবহার করা যেতে পারে। বাচ্চারা সাধারণত বড়দের হিসেবে যা উষ্ণ তার চেয়ে সামান্য কম তাপমাত্রার পানি পছন্দ করে। 
  • কয়েক মাস বয়সী বাচ্চা, যে এখনো বসতে পারেনা- তার জন্য দুই থেকে চার ইঞ্চি গভীরতার পানিই যথেষ্ট। আর বাচ্চা বসা শিখলে কোমর পরিমাণ পানি নেওয়া যেতে পারে।
  • বাচ্চাকে টাবের মধ্যে দাঁড়াতে দেওয়া যাবে না এবং এ বিষয়টি তাকে শিখাতে হবে।
  • বাচ্চাকে সাবান ছাড়া শুধু পানি দিয়েও গোসল করানো যাবে। তবে তাকে আলতো করে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে। অবশ্যই বাবুর জন্য শিশু উপযোগী প্রসাধনি সামগ্রী যেমনঃ শ্যাম্পু, বডি ওয়াশ, শাবান, তেল ইত্যাদি ব্যবহার করবেন, বড়দের প্রসাধনী ব্যবহার করলে তার কোমল ত্বকের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। বাচ্চাকে গোসল করানোর পর শুষ্ক ত্বক রোধ করার জন্য ময়েশ্চারাইজিং লোশান ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • বাচ্চা যদি বেশিক্ষন পানিতে থাকতে পছন্দ করে তবে সাবান এবং শ্যাম্পু শেষের দিকে ব্যবহার করা ভাল।
  • পানি গরম করার জন্য হিটার ব্যবহার করা হলে লক্ষ্য রাখতে হবে বাচ্চা যেন গরম পানির কল কিংবা হিটারে হাত না দেয় কারণ এতে বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।
  • বাথরুমে এবং পানির আশেপাশে কোন ইলেকট্রিক যন্ত্র রাখা থেকে বিরত থাকুন।